বিরামপুরে আবাসিক হোটেল থেকে নবম শ্রেনী ও দশম শ্রেনীর ৩ জোড়া কপোত কপোতিকে আটক

মোঃ নাজমুল হোসেন ,দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের বিরামপুর পৌর শহরের ঢাকা মোড়ে রাজ ভিলাস আবাসিক হোটেল থেকে নবম শ্রেনী ও দশম শ্রেনীর প্রেমিক প্রেমিকা সহ ৩ জোড়া-কপোত কপোতিকে আটক করেছে। শহরের কেন্দ্র বিন্দুতে এ রকম দেহ ব্যবসা পরিচালনা করায় কথিত সাংবাদিক মোরশেদ মানিককে নিয়ে এলাকায় হৈ চৈ পড়ে গেছে।

আজ শনিবার দুপুরে বিরামপুর থানার মনিরুজ্জামান আবাসিক হোটেল মালিক ও তিন জোড়া কপোত কপোতি আটকের সংবাদ নিশ্চিত করেছেন । জানা গেছে, বিরামপুর ঢাকা মোড়ে কথিত সাংবাদিক মোরশেদ মানিক স্বত্তাধিকারি চাংপাই চাইানিজ হোটেল খুলে বসে। এ হোটেলে ছোট ছোট কক্ষ বানিয়ে ঘন্টা চুক্তি ভাড়া দিয়ে অনৈতিক কার্যকলাপ পরিচালনা করে আসছেন। তার উপর তলায় রাজ ভিলাস নামে আবাসিক হোটেল খুলে সেখানে অবাধে দেহ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন তিনি।

এ নিয়ে এলাকার লোকজন ক্ষুব্ধ প্রতিক্রীয়া ব্যক্ত করলেও শুক্রবার রাতে এলাকার লোকজন ঐ হোটেল ঘিরে ফেলে পুলিশকে সংবাদ দেয়। থানার পুলিশ রাজ ভিলাস হোটেলে অভিযান চালিয়ে ৯ম শ্রেণির ছাত্রী ও ১০ম শ্রেণির ছাত্রসহ ৩ জোড়া কপোত-কপোতি এবং হোটেল মালিক মোরশেদ মানিককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান,‘আটককৃতরা শিক্ষার্থী হওয়ায় অভিভাবকে ডেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে এবং হোটেল মালিক মোরশেদ মানিক অনৈতিক ব্যবসা না করার শর্তে মুচলেকা দিলে পুলিশ তাকেও ছেড়ে দেওয়া হয়েছে’।


বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মিথুন সরকার বলেন,‘বিরামপুরে যত আবাসিক হোটেল রয়েছে প্রত্যেকটিতেই সিসি ক্যামেরা লাগানোর ব্যবস্থা করা হবে এবং এ ধরণের অনৈতিক কাজ যেন আর না করতে পারে সে জন্য তাদের সর্তক করা হবে’।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য