পঞ্চগড়ে প্রণোদনার তালিকা প্রণয়নে ইউপি সদস্যের ব্যাপক অনিয়ম

মু. আবু নাঈম পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড় সদর উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনার আড়াই হাজার টাকার তালিকা প্রণয়নে উৎকোচ গ্রহণ করেও তালিকাভুক্ত না করাসহ বিস্তর অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। একরামুল হক নামের ওই ইউপি সদস্য উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য। গত ২১ মে তার বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর গণ-অভিযোগ করেছে ওই ওয়ার্ডের কমলাপাড়া, বড়ুয়াপাড়া ও খালপাড়া গ্রামের ভুক্তভোগিরা। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ঈদ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনার আড়াই হাজার টাকার তালিকায় নাম উল্লেখ এবং এক বস্তা করে চাল দেয়ার আশ্বাস দিয়ে কমলাপাড়া, বড়ুয়াপাড়া ও খালপাড়া গ্রামের ৮-১০ জনের কাছে ৫০০ টাকা থেকে একহাজার টাকা করে উৎকোচ নেয় ইউপি সদস্য একরামুল। কিন্তু তালিকা প্রণয়নের পর ভুক্তভোগিরা জানতে পারেন তাদের নাম তালিকাভুক্ত হয়নি। এখন পর্যন্ত পাননি তারা প্রণোদনার আড়াই হাজার টাকা। তরিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, বিশার আলী ও আকিল নামের ভুক্তভোগিরা জানান, তাদেরকে এক বস্তা করে চাল ও আড়াই হাজার টাকার তালিকায় নাম উল্লেখ করার কথা বলে ঘুষ নিয়েও তালিকাভুক্ত না করে প্রতারণা করেছে ইউপি সদস্য একরামুল হক। এছাড়াও ভিজিডি ও ভিজিএফ কার্ড এবং খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চাল বিতরণেও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ রয়েছে এই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। তবে অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে ইউপি সদস্য একরামুল বলেন, তার বিরুদ্ধে ষরযন্ত্রমূলক ভাবে এই অভিযোগ আনয়ন করা হয়েছে। অমরখানা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান (প্যানেল) জয়নাল আবেদীন বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ হয়েছে আমি জানতে পেরেছি। তদন্তে প্রমাণ হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম রব্বানী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য