কালীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের চেষ্টা, যুবক শ্রীঘরে

হাসানুজ্জামান হাসান, লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে দশম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টায় এক যুবক কে  আটক করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। আটককৃত যুবক, আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মেলমেলির বাজার এলাকার মমিনুর রহমানের পুত্র সামিউল বাশার সুমন (২১)।সে তালুকবানীনগর এলাকায় ঢাকা টোবাকো কোম্পানিতে কর্মরত।
সরেজমিনে ঘটনার বিবরণে জানা যায়, কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের দক্ষিন ঘনেশ্যাম এলাকার বাসিন্দা ইউসুফ আলীর দশম শ্রেণী পড়ুয়া স্কুল ছাত্রী জেসমিন নাহার (২০) এর সহিত পূর্ব থেকে শামিউল বাশার সুমনের মোবাইল ফোনে কথাবার্তা যোগাযোগ ও পরিচয় ঘটে। পরিচয়ের পর সুমন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় মেয়েটিকে নিয়ে গিয়ে দৈহিক মেলামেশা করে আসছে। গত ২৬ মে (মঙ্গলবার) সামিউল বাশার সুমন মেয়ের বাড়িতে এসে তার শয়ন ঘরে প্রবেশ করে দৈহিক মেলামেশা করার চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে সামিউল বাশার সুমন কে আটক করে রাখে। পরদিন সকালে, ছেলের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে কালীগঞ্জ থানা পুলিশের একটি টিম ছেলে মেয়েকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ থানা নিয়ে আসেন। এবং মেয়ের অভিযোগের ভিত্তিতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। উক্ত দায়েরকৃত মামলায় আসামি সামিউল বাশার সুমন কে গত ২৮মে সকালে লালমনিরহাট জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, মেয়ের অভিযোগ পেয়ে মামলা রেকর্ড করে আসামিকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং মেয়েকে মেডিকেল চেকআপের জন্য পাঠানো হয়েছে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য