ডোমার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩চিকিৎসকসহ ২৫ জন কোয়ারেন্টিনে

রতন কুমার রায়,ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জ্বর ও পাতলা পায়খানার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয় পাশ্ববতর্ী জলঢাকা উপজেলার ধর্মপাল ইউনিয়নের মাঝাপাড়া গ্রামের এক কলেজ ছাত্র। নমুনা পরিক্ষার পর সোমবার করোনা ভাইরাস সনাক্ত হয়। রাতেই আক্রান্ত ছাত্রের বাড়ীসহ পাশ্ববতর্ী সাতটি বাড়ী লকডাউন ও ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩চিকিৎসক, নাস, বয়, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ২৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়,গত এক সপ্তাহ আগে (৮ এপ্রিল) পার্শবতর্ী জলঢাকা উপজেলার ধর্মপাল ইউনিয়নের মাঝাপাড়া গ্রামের এক কলেজ ছাত্র জ্বর ও পাতলা পায়খানা উপসর্গ নিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় (১১ এপ্রিল) তার নমুনা সংগ্রহ করে রংপুর মেডিকেলে পাঠায় স্বাস্থ্য বিভাগ। এরপর সুস্থ্যবোধ করায় ওই দিনেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হলে সে নিজ বাড়ীতে অবস্থান করেছিল। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহীম জানান, তিন চিকিৎসকসহ  ২৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অন্যান্য ডাক্তারদের সর্বক্ষনিক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সিভিল সার্জন ডা. রনজিত কুমার বর্মন জানান, আক্রান্ত যুবককে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য