'আমার সন্তানকে বাঁচাতে সহযোগীতা করুন' (মানবিক আবেদন)

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে এক ফুটফুটে শিশুর অসহায় বাবা সন্তানকে বাঁচাতে সমাজের হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে সহযোগীতার আবেদন জানিয়েছেন।
উপজেলার যশরা ইউনিয়ন এর শিবগঞ্জ গ্রামের অত্যন্ত দরিদ্র রেজাউল করিম রাসেল এই অসহায় বাবা। তার সাড়ে দশ মাস বয়সের একমাত্র শিশুপুত্র আদিলের জন্মের চার দিনের মাথায় পয়নালী ফেটে যাওয়ায় দ্রুত শিশুটিকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভর্তি করেন।
পরে চিকিৎসকরা দুটি অপারেশন করে পেট ছিদ্র করে পাইপের মাধ্যমে শিশুটির পায়খানার ব্যবস্থা করে দেন। গত ১৮ ডিসেম্বর অবস্থার অবনতি হওয়ায় শিশুটিকে আবার ঢাকা শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ অবস্থায় অপারেশনের চার দিনের মাথায় পেটের ভেতর সেলাই ফেটে যায়।
বর্তমানে শিশুটি ঢাকা শিশু হাসপাতালের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ২০ নম্বর বেডে চিকিৎসারত রয়েছে। শুরু থেকে এ পর্যন্ত রেজাউল করিম রাসেল ধার-কর্জ করে সন্তানের চিকিৎসার পেছনে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা খরচ করেছেন।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন শিশুটির সুস্থতার জন্য আরো অনেক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু সেই সাধ্য নেই। তাই তিনি সমাজের হৃদয়বান মানুষের কাছে আর্থিক সহযোগীতার অনুরোধ করেছেন। সাহায্য পাঠাতে রেজাউল করিম রাসেলের বিকাশ নম্বর ০১৭১০১৯০৬২১।
রেজাউল করিম রাসেল বলেন, আমি একটি কম্পানিতে ছোট একটি চাকরি করি। বেতনের টাকায় সংসার চলে না। এ অবস্থায় ধার-কর্জ করে প্রায় ৫ লাখ টাকা সন্তানের পেছনে খরচ করেছি। কিন্তু সন্তানকে সুস্থ করতে আরো অনেক টাকা দরকার। আল্লায় জানে সন্তানকে বাঁচাতে পারব কিনা।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম রিয়েল বলেন, খুবই বেদনাদায়ক ঘটনা। জন্মের চার দিনের মাথায় শিশুটির পয়নালী ফেটে যায়। শিশুটির বাবা খুবই গরিব। এতদিন ধার-কর্জ করে সন্তানের চিকিৎসা করিয়েছেন। কিন্তু শিশুটিকে সম্পূর্ণ সুস্থ করতে আরো অনেক টাকা দরকার।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য