পরশ্রীকাতরতা

সানিয়া আজাদঃ
পরশ্রীকাতরতা বা হিংসা একটি মানসিক ব্যাধি। হিংসা হলো অন্যের প্রাপ্ত সৌভাগ্য বা পুরস্কারকে মনে প্রাণে অপছন্দ করা এবং একান্তভাবে কামনা করা যে তার সৌভাগ্য, সম্পদ বা সম্মান যেন নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়। একজন ব্যক্তি যখন পরশ্রীকাতরতায় আক্রান্ত হয়, তখন সে ছাড়া আর কারো ওপর আল্লাহ অনুগ্রহ করুন বা সৌভাগ্য দান করুন তা একান্তভাবে অপছন্দ করে।
আমাদের দেশে এই পরশ্রীকাতরতা মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। ভাই, ভাইয়ের উন্নতি দেখলে বুকে জ্বালা করে। আত্নীয়, প্রতিবেশী, বন্ধুবান্ধব, সহকর্মী এমনকি স্বল্প পরিচিত ব্যক্তির উন্নতিতেও বুকে তুষের আগুন জ্বলে। অনেক পরহেজগার, উচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তিও এই দোষ থেকে মুক্ত নন। অথচ তারা জানেনা যে আল্লাহর দৃষ্টিতে তারা বিদ্রোহী হিসাবে চিহ্নিত হয়। সে ইসলামের পাঁচ স্তম্ভ সুচারুভাবে পরিপালন করা সত্ত্বেও বিদ্রোহী, কেননা সে আল্লাহর সিদ্ধান্তের উপর প্রশ্ন তুলেছে।
একজন মানুষ হিংসার কারণে ভাইবোন, আত্মীয়, প্রতিবেশীর কল্যাণ কামনা করতে ব্যর্থ হয় তখন তার ঈমানও হালকা হতে থাকে। শুধুমাত্র এই পরশ্রীকাতরতার জন্য ঈমানের সাথে মৃত্যুও হতে পারে না। ইহকালেও অন্তর বিষাক্ত হতে হতে সে অসুস্থ হয়ে যায়, দিনের পর দিন যন্ত্রণায় কাতর হয়ে সে শয্যাশায়ী হয়ে পড়ে।
তাই নিজে ভালো থাকতে হলে অন্যের ভালো চাইতে হবে আগে। আর এই ভালো চাওয়া নিজের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ভুলে যান সামনের সারিতে আলোচিত ব্যক্তিটি ছিল অনেক গরীব ঘরের কিংবা পিছিয়ে পড়া সমাজের কেউ। মনের সকল আবর্জনা দূর করে যার যার প্রাপ্য গুণের জন্য অভিনন্দিত করুন। দেখবেন এক স্বর্গীয় আনন্দে ও আলোয় অন্তর পরিপূর্ণ হয়ে আছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য