সততায় স্বর্ণপদক পেলেন টেকনাফের দুবাই প্রবাসী নুরুল ইসলাম

সততা মানব জীবনের অমূল্য সম্পদ।এই সম্পদ অর্জনের জন্য চেষ্টা ও চর্চা একজন মানুষকে পৌঁছে দিতে মর্যাদা ও গৌরবের শ্রেষ্ঠতম আসনে।আর,যিনি এই সম্পদ অর্জন করতে পারেন তিনিই সমাজে আদর্শ ব্যক্তি হিসেবে পরিচিতি লাভ করে থাকেন।

সততাকে বলা হয়,মানব চরিত্রের অলঙ্কার।ব্যক্তি পর্যায়ে এই গুণের প্রকাশ ঘটিয়ে আদর্শ,কর্মদক্ষতা ও কর্মনিষ্ঠ এর উজ্জ্বল ফলস্বরূপ অর্জন করেছেন পুরস্কার।আর তিনি হচ্ছেন,টেকনাফ উপজেলার অন্তর্গত বাহার ছড়া ইউনিয়নের মারিশ বনিয়া এলাকার সুলতান আহমদের বড় ছেলে জনাব নুরুল ইসলাম।যিনি ২০০২ সালে জীবিকার তাগিদে পাড়ি জমান মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আরব আমিরাতে।সেখানে গিয়ে আরব আমিরাতের স্থায়ী বাসিন্দা ও আরব আমিরাতের ডিপি ওয়ার্ল্ড এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলী বিন রশিদ আল আব্বার এর কাছে ড্রাইভারের চাকরি করেন।সেই মালিকের কাছে চাকরী করে অতিবাহিত করেন তার জীবনের দেড় যোগ সময়।

এই সময়ে তার মালিকের কাছে সে হয়ে উঠে সৎ,কর্মঠ ও বিশ্বাসী ব্যক্তি।তাই তার এই সততায় খুশি হয়ে তার মালিক তাকে সততার পুরস্কার হিসেবে প্রদান করেন স্বর্ণপদক ও অর্থ-পুরস্কারসহ আরো অনেক পুরস্কার।যদিও তিনি বিদেশ থাকেন,তবুও তিনি এলাকার গরিব,দুঃখী মানুষের বিপদের সময় পাশে থাকেন।তার দীর্ঘদিনের একটা স্বপ্ন হচ্ছে,এলাকার মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাওয়া।আর,তাই দেশের সকল মানুষের কাছে দোয়ার প্রার্থনা করেন তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য