শুদ্ধাচারে ঠাকুরগাঁওয়ের শ্রেষ্ঠ ইউএনও আব্দুল্লাহ-আল-মামুন

মেহেদী  হাসান,ঠাকুরগাঁওঃ
ঠাকুরগাঁও জেলা পর্যায়ে শুদ্ধাচার পুরস্কার ২০১৯-২০২০ এ জেলার শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হিসেবে পুরস্কার ও স্বীকৃতি লাভ করেছেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন।

বুধবার (১ জুলাই) দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ঠাকুরগাঁও সদর ইউএনও আব্দুল্লাহ-আল-মামুনের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলেদেন জেলাপ্রশাসক প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম।


এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নূর কুতুবুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: আমিনুল ইসলামসহ জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, সুখি-সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে এবং রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ও সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পেশাগত জ্ঞান, দক্ষতা, সততা, উদ্ভাবন, ই-ফাইলিং, নির্ভরযোগ্যতা ও কর্তব্যনিষ্ঠা, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার ও অভিযোগ প্রতিকার, প্রকল্প বাস্তবায়নে স্বচ্ছতা, সহকর্মী ও সেবা গ্রহীতাদের সাথে ভালো আচরন, সকল দপ্তর ও বিভাগের সাথে সমন্বয়সহ শুদ্ধাচার চর্চা বিষয়ক বিভিন্ন সূচকে সফলতা অর্জনের স্বীকৃতি স্বরূপ তাঁকে পুরষ্কৃত করা হয়।

উল্লেখ্য, ইউএনও হিসেবে গত ৮ আগষ্ট ২০১৮ ইং তারিখে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় যোগদান করেন ৩০তম বিসিএস ব্যাচের ক্যাডার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন। ইউএনও হিসাবে যোগদানের পর থেকেই মেধা, সততা, যোগ্যতা আর দায়িত্ববোধের প্রমাণ দিয়ে উপজেলাবাসীর মন জয় করে তিনি ঠাকুরগাঁওবাসীর কাছে মানবিক ও পরিশ্রমী ইউএনও হিসেবে প্রশংসিত হয়েছেন।

পাঁচ উপজেলা নিয়ে গঠিত ঠাকুরগাঁও জেলায় তাঁর কৃতিত্বের অবদান এবং তাঁর সম্মানে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলাবাসী গর্বিত।

শ্রেষ্ঠ্যত্বের প্রতিক্রিয়ায় ইউএনও আব্দুল্লাহ-আল-মামুন বলেন, যেকোনো অর্জনই আনন্দের, কাজের স্বীকৃতি কর্মস্পৃহাকে বাড়িয়ে তোলে এবং স্বীকৃতি দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি করে। এই সার্ভিসে প্রবেশ আমার আব্বুর অনুপ্রেরণায়। আমার এই অর্জন আমার পিতাকে উৎসর্গ করলাম। এছাড়া আগামীর পথচলায় তিনি সকলের দোয়া, পরামর্শ, উৎসাহ ও উদ্দীপনায় কাজ করার আশা ব্যক্ত করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য