তলিয়ে যাওয়া সবজি বাঁচাতে ৪ ইউনিয়নের মানুষের চলাচলের পথটি কাটলো এলাকাবাসী


মোঃ মাসুদ রানা, কুড়িগ্রামঃ 
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার যাত্রাপুর, ঘোগাদহ, পাঁচগাছি ও উলিপুর উপজেলার বেগমগঞ্জ ইউনিয়নের মানুষের জেলা শহরে প্রবেশের রাস্তাটি যা কুড়িগ্রাম-যাত্রাপুর সড়কের শুলকুর বাজার এলাকার নির্মাণাধীন সেতুর পাশে অবস্থিত বিকল্প পথটি কেটে দিয়েছে এলাকাবাসী। এতে করে ভোগান্তিতে পরেছে শত শত মানুষ। 

জানা যায়, কয়েক দিনের অতি বৃষ্টিতে ধরলার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় শুলকুর বাজার এলাকার নির্মানাধীন ব্রিজের পাশে বিকল্প রাস্তাটি থাকায় জমে থাকা বৃষ্টির পানি নেমে যেতে  না পারায়  পানি বৃদ্ধির কারনে কুড়িগ্রাম সদরের পাঁচগাছী ইউনিয়নের কাঁচিচর এলাকাবাসীর বিভিন্ন সবজি ক্ষেত- পাট, ঢেরোস, পটলসহ অনেক ফসলের ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় তা রক্ষার্থে  নির্মাণাধীন সেতুর পাশে বিকল্প পথটি ওই এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা কেটে দিতে বাধ্য হন। এতে করে চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ডিঙি নৌকায় ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ৪ ইউনিয়নের শত শত মানুষ।
  
মঙ্গলবার  (৯ জুন) সরেজমিনে গিয়ে এ চিত্র দেখা গেছে।

 পথচারী রিপন ও উজ্জ্বল বলেন,এখানে থাকা সেতুটি ভাঙার পর থেকে আমরা নানা ধরনের ভোগান্তির শিকার হচ্ছি। বিকল্প পথটি কেটে দেয়ায় আমরা চরম ভোগান্তিতে পরেছি। এখন কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। ফলে জেলা শহরে প্রবেশ করতে গিয়ে আমাদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

কাঁচিচর এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক এরশাদুল হক ভোলা ও জমসের আলী জানান,এই বিকল্প পথ দিয়ে বৃষ্টির পানি প্রবাহিত হতে না পাড়ায় কয়েকদিনের বৃষ্টিতে আমাদের এলাকার বিভিন্ন সবজি ক্ষেত  তলিয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে আমরা এলাকাবাসী উপজেলা নিবার্হী অফিসারের কাছে লেখিত অভিযোগ দিয়ে বিকল্প পথটি কেটে দিয়েছি।

পাঁচগাছী ইউনিয়নের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন, বিকল্প পথটি যদি আগে পানি প্রবাহিত করার ব্যবস্থা করে দিতো তাহলে আজ এই সমস্যা হতো না। দ্রুত মেরামত না করলে যেকোন সময় এখানে বড় ধরনের দুঘর্টনা ঘটতে পাড়ে।

পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়ের (এলজিইডি) স্থানীয় দপ্তরের উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ ছামিন সারালো ফুয়াদ মোবাইল ফোনে জানান, স্থানীয় লোকজন আপাতত পাটেশ্বরী হয়ে চলাচল করবে আমরা দুই-একদিনের মধ্যে এ পথটি মেরামত করে দিবো।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য