চকরিয়ার হারবাং মরহুম হাজী কাসেম আলী ফাউন্ডেশনের পক্ষে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান সম্পন্ন

নাছির উদ্দীনঃ
চকরিয়া উপজেলার হারবাং গোদার পাড়ার হাজী কাসেম আলী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এলাকার বেকার যুবক,ছাত্র ও অসহায় ১০০  তরুনের মাঝে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান সম্পন্ন করেন ফাউন্ডেশনের বর্তমান চেয়ারম্যান, আনিস ট্রেডার্স এর সত্ত্বাধিকারী ও হারবাং তরুন একতা সংঘের সভাপতি জনাব আনিসুল ইসলাম শাহ্ রিক।

জানা যায় ১৯৭২ সালে মরহুম হাজী কাসেম আলী গরিব ও অসহায় মানুষের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে ব্যাক্তিগত অর্থে নিজ নামে ফাউন্ডেশন টি প্রতিষ্টিত করেন।তাহার মানবিক এই কার্যক্রম চলমান রাখতে হাজী কাসেম আলীর মৃত্যুর পর তার একমাত্র পুত্র মরহুম আলতাফ হোসেন (সাবেক এমইউপি,সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান,সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি হারবাং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ) ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান হিসেবে এই কার্য ভার গ্রহণ করেন। তিনি সূ-দীর্ঘ সময় ধরে অত্যন্ত দক্ষতার সহিত এই ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম পরিচালনা করে এলাকায় ব্যাপক সুনাম সৃষ্টি করেছেন।

১৯৯৩ সালে আলতাফ হোসেন (আলতাফ মেম্বার) এর মৃত্যুর পর তাহার বড় ছেলে চকরিয়া প্রেস ক্লাব এর প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক মরহুম এবিএম সিদ্দিক উক্ত ফাউন্ডেশনের দ্বায়িত্বভার গ্রহণ করেন।

মরহুম এবিএম সিদ্দিক দীর্ঘ ২৫ বছর দক্ষতার সহিত এই মানবিক ফাউন্ডেশনের দ্বায়িত্ব পালন করেন।২০১৮ সালে তাহার মৃত্যুর পর উক্ত ফাউন্ডেশনের হাল ধরেন মরহুম আলতাফ হোসেন এর ছোট ছেলে আনিসুল ইসলাম শাহ্ রিক।

তিনি ফাউন্ডেশনের বর্তমান চেয়ারম্যান হিসেবে উক্ত ফাউন্ডেশনের কর্যক্রম অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা যায়।
হাজী কাসেম আলী ফাউন্ডেশনের বর্তমান চেয়ারম্যান আনিসুল ইসলাম শাহ্ রিক বলেন তার পূর্ব পুরুষ যেইভাবে মানবতার কল্যানে জীবন উৎসর্গ করেছেন তিনিও সেই কর্যক্রম আমরণ ধরে রাখতে চান।তারই ধারা বাহিকতায় দেশে করোনা প্রাদুর্ভাবে ঘরবন্দী অসহায় ৪০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য দ্রব্য ও ইফতার সামগ্রী বিতরন করেন এবং সম্প্রতি এলাকার ১০০ জন বেকার যুবক,ছাত্র ও অসহায় তরুনদের মাঝে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন।ফাউন্ডেশনের এই কার্যক্রম চলমান রাখতে তিনি সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য