করোনা আক্রান্ত গার্মেন্টস কর্মী পালিয়ে এলো পাটগ্রামে

হাসানুজ্জামান হাসান,লালমনিরহাটঃ
ঢাকায় করোনা আক্রান্ত এক গার্মেন্টস কর্মী পালিয়ে এলো লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার সীমান্তবর্তী ধবলসুতি গ্রামে। এ ঘটনায় চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪ মে) রাত সাড়ে ১০ টায় তাকে আটক করে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করেছে পুলিশ। চিকিৎসরা ধারণা করছেন ওই গার্মেন্টস কর্মী মাধ্যমে অনেকে করোনা সংক্রামিত হয়ে থাকতে পারে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকার নারায়নগঞ্জের গার্মেন্টস কর্মী রিয়াজুল ইসলাম (৩০) জ্বর, সর্দি ও গলাব্যথা অনুভব করলে ঢাকায় নমুনা সংগ্রহ করে পরীার জন্য পাঠানো হয়। বুধবার তার করোনা পজেটিভ রির্পোট আসে। রির্পোট হাতে পেয়ে সে ঢাকার ঠিকানায় ফিরে যায়নি। সে পালিয়ে আসে গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাটের পাটগ্রামের ধবলসুতি গ্রামে। পরে ঢাকা হতে পাটগ্রাম পুলিশ ও লালমনিরহাটের সিভিল সার্জনকে বিষয়টি অবগত করা হয়। তাকে সনাক্ত করে রাতে পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত গার্মেন্টস কর্মী রিয়াজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা হতে ১৪ জন মিলে একটি মাইক্রোবাস ভাড়া করে রংপুরে আসে। সকলেই রংপুরে নেমে যায়। পরে সে রংপুর হতে কয়েক বার অটোরিক্সা বদল করে পাটগ্রামে তার গ্রামের বাড়িতে আসে। এদিকে তার তথ্যমতে রংপুরে নেমে যাওয়া মাইক্রোবাসের চালক,অটোরিক্সার যাত্রী ও চালকদের সন্ধান করা হচ্ছে। কারণ সংক্রামণ রোধে তাদের নমূনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে। পাটগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মোহন্ত বলেন, তথ্য পেয়েই পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লোকজন সহ ওই যুবককে ধরে নিয়ে এসে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।
লালমনিরহাট সিভিল সার্জন ডা. নির্মলেন্দু রায়  সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,ওই গার্মেন্টস কর্মী যুবকের বাড়ি স্থানীয় প্রাশাসনের মাধ্যেমে লকডাউন করা হয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য