নাটোরে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানোর সিদ্ধান্ত ৫ বছরেও বাস্তবায়ন হয়নি ॥ দ্রুত বাস্তবায়নের দাবী

মোহাম্মদ শরিফ,নাটোর :
নাটোরের আইন-শৃঙ্খলা ব্যবস্থা জোরদার করতে বিভিন্ন সড়কের গুরুত্বপূর্ন স্থানে ৩৬টি ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ। পুলিশের একটি বিশেষজ্ঞ টিম প্রায় ১৫টি স্থান পরিদর্শন করেন এবং সেই স্থান গুলোতে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের জন্য ঢাকায় প্রতিবেদন প্রেরণ করেন। কিন্তু বছর পার হয়ে গেলেও এর দৃশ্যমান কিছু চোখে পরেনি সাধারনের।
নাটোরের আইন-শৃঙ্খলা ব্যবস্থা জোরদার করতে এবং সাধারনের নিরাপত্তার দিক বিবেচনা করে ২০১৫ সালে শহরের গুরুত্বপূর্ন স্থানে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে শহরের ১৫ টি স্থানে ক্যামেরা বসানোর জন্য প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর পুলিশের বিশেষজ্ঞ টিম সিসি ক্যামেরা স্থাপনের জন্য একটি প্রতিবেদন ঢাকায় পাঠায়।
নাটোর জেলা জুয়েলার্স সমিতির সভাপতি দুলাল কর্মকার বলেন, নাটোরে সিসি ক্যামেরা স্থাপন খুবই জরুরী। সিসি ক্যামেরা থাকলে চুরি ,ছিনতাই ,রাহাজানী সহ বিভিন্ন অপরাধের ফুটেজ দেখে তাদের সনাক্ত করা সম্ভব হয়। এতে করে অপরাধীদের  আইনের আওতায় আনা সহজ হবে। একবার পুলিশের পক্ষ থেকে পদক্ষেপ নেওয়া হলেও তা এখনো কার্যকর হয়নি। ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠানের তালা ভেঙ্গে ট্রাক লোড করে সব মালপত্র ডাকাতি করে নিয়ে যায়। এমন ঘটনা ঘটলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে তেমন কোন সহযোগীতা পাওয়া যায়না। তাই শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন মোড়ে সিসি ক্যামেরা স্থাপন জরুরী। সাধারন মানুষ মনে করে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করলে অপরাধীরা একটু ভীত হবে এবং সাধারন জনগণ উপকৃত হবেন। রাজনৈতিক সামাজিক অপরাধমুলক ঘটনা প্রজ্যবেক্ষনের জন্য সিসি ক্যামেরা গুরুত্বপূর্ন বিষয়। সিসি ক্যামেরা থাকলে অপরাধ প্রবনতা কমবে। পুলিশ প্রশাসনও উপকৃত হবেন। সিসি ক্যামেরা থাকলে পুলিশ প্রশাসন নিজেরাও তথ্য প্রযুক্তিগত সুবিধা পাবে এবং সাধারন মানুষের মাঝে ইতিবাচক হবে।
বিষয়ে পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, এই নাটোরকে শতভাগ নিরাপত্তার মধ্যে আনার জন্য একটা পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, প্রধান প্রধান সড়ক, সকল স্থানেই সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা যায়। এরফলে অনেক গুরুত্বপূর্ন ঘটনা তারা দ্রুত ডিটেক্ট করতে পারবেন এবং আইন শৃংখলার উন্নতি হবে। এর বাহিরেও সিসি ক্যামেরা স্থাপন হলে নাটোরের ট্রফিক ব্যবস্থারও অনেক উন্নতি হবে। সার্বিকভাবে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সিসি ক্যামেরা স্থাপন দ্রুত করা হবে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য