হালকা পোশাকে প্রায় উন্মুক্ত প্রিয়াঙ্কার বুক, গ্র্যামির মঞ্চে ঝড়

হালকা পোশাকে প্রায় উন্মুক্ত প্রিয়াঙ্কার বুক, গ্র্যামির মঞ্চে ঝড়

 
গ্র্যামি পুরস্কারের মঞ্চে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার পোশাক হিল্লোল তুলেছে অনুরাগীদের হৃদয়ে। সাহসী পোশাক প্রিয়াঙ্কা আগেও পরেছেন। কিন্তু এতটা! ডিপ নেকলাইনের এই পোশাকের খাঁজ থেকে উঁকি মারছে বক্ষবিভাজিকা। চোখ যেন আর কোনও দিকে যায় না। আন্তর্জাতিক পুরস্কারের রেড কার্পেটে প্রিয়াঙ্কার এই পোশাক এখন নেট দুনিয়ায় হট টপিক। তবে অভিনেত্রীর এই পোশাক যেমন অনেকে পছন্দ করেছেন, তেমনই সমালোচনার শিকারও হয়েছেন তিনি। তাঁর পোশাককে সরাসরি ‘বকওয়াস’ বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ। এমনকী ‘কপিক্যাট’ কটাক্ষও শুনতে হয়েছে তাঁকে।
প্রিয়াঙ্কা
নিউজ ডেস্কঃ
গ্র্যামি পুরস্কারের মঞ্চে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার পোশাক হিল্লোল তুলেছে অনুরাগীদের হৃদয়ে। সাহসী পোশাক প্রিয়াঙ্কা আগেও পরেছেন। কিন্তু এতটা! ডিপ নেকলাইনের এই পোশাকের খাঁজ থেকে উঁকি মারছে বক্ষবিভাজিকা। চোখ যেন আর কোনও দিকে যায় না। আন্তর্জাতিক পুরস্কারের রেড কার্পেটে প্রিয়াঙ্কার এই পোশাক এখন নেট দুনিয়ায় হট টপিক। তবে অভিনেত্রীর এই পোশাক যেমন অনেকে পছন্দ করেছেন, তেমনই সমালোচনার শিকারও হয়েছেন তিনি। তাঁর পোশাককে সরাসরি ‘বকওয়াস’ বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ। এমনকী ‘কপিক্যাট’ কটাক্ষও শুনতে হয়েছে তাঁকে। 

২৬ জানুয়ারি লস অ্যাঞ্জেলসে বসেছিল গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডের আসর। অনুষ্ঠানে আইভোরি রঙের পোশাক পরে হাজির হয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। পোশাকটি ডিজাইন করেছিলেন ব়্যালফ অ্যান্ড রুসো। পোশাকের ডিপ কাটের নেকলাইন নাভি পর্যন্ত নামানো। নাভিটিও প্রিয়াঙ্কা সাজিয়েছেন সুচতুরভাবে। ফলে নাভিটিও চোখ টানবে অনুরাগীদের। সম্পূর্ণ পোশাকটি যে অত্যন্ত সাহসী, তাতে সন্দেহ নেই। কিন্তু এমনই একটি পোশাক পরে ২০০০ সালে গ্র্যামি পুরস্কারের রেড কার্পেটে হেঁটেছিলেন জেনিফার লোপেজ। তাই ‘কপিক্যাট’ তকমা লেগে গেল প্রিয়াঙ্কার উপর। তবে জেনিফারের পোশাকটি ছিল সবুজাভ। কিন্তু তাতে কি? ডিজাইন যে মিলে গিয়েছে।
/সংবাদ প্রতিদিন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য