দিনাজপুরের বিএনপির ইউনিয়ন কমিটিকে কেন্দ্র করে প্রতিদিনই চলছে ব্যাপক উত্তেজনা


চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ, দিনাজপুরঃ

দিনাজপুরের খানসামায় বিএনপির ইউনিয়ন কমিটিকে কেন্দ্র করে প্রতিদিনই চলছে ব্যাপক উত্তেজনা তার ধারাবাহিকতায় গতকাল রাত ৮ টার সময় উপজেলার বিএনপির নেতাবৃন্দ  ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকসহ প্রায় ৫০০  নেতাকর্মী বৃন্দ পাকেরহাটস্থ খানসামা উপজেলা বিএনপির কমিটি আহ্বায়ক মোঃ আমিনুল হক চৌধুরীর দোকানে  একত্রিত হয়ে তাকে অবরুদ্ধ করা হয়। 

পূর্বের ঢাকায় বসে আহবায়ক সহ দুজন যুগ্ন আহবায়ক মিলে কমিটি করায় বিতর্ক তৈরী হয়। বিতর্কিত কমিটি বাদ দিয়ে নতুন কমিটির রেজুলেশন কয়েক দিন পূর্বে করা হয়েছিলো যা প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে কমিটির আত্বপ্রকাশ করার কথা ছিলো কিন্তু তিনি সেই কমিটির আত্নপ্রকাশ না করে কালক্ষেপণ করায় নেতাকর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে।

পরে নেতাকর্মীদের সাথে আহ্বায়কের বাক যুদ্ধে নিজের আত্মসম্মান বাঁচাতে দোকান থেকে আহ্বায়ক আমিনুল হক চৌধুরী কৌশলে পালিয়ে নিজ বাড়িতে যান।  উত্তেজিত নেতাকর্মীরা তার কিছুক্ষন পরেই আহ্বায়ক আমিনুল হক চৌধুরীর বাড়িতে যান। প্রায় দুঘন্টা রাস্তায় অবস্থান করার পরে  আমিনুর হকের ভাতিজা মাসুদ ইকবাল চৌধুরী মর্ডান ও মোজাম উদ্দিন এসে জানান তিনি শারীরিক ভাবে অসুস্থতা বোধ করছেন। তাই আপনাদের সাথে আজকে কথা বলবেন না, আগামীকাল কথা বলতে চেয়েছেন। 

এ সময় আমিনুল হক চৌধুরীর বাড়ির মসজিদে মাইকে এলাউন্স করা হয় যে তার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা হচ্ছে। সে এলাউন্স শুনে পুরোগ্রামের নারী পুরুষ সবাই উত্তেজিত ভাবে একত্রিত হয়ে আমিনুল ইসলামের বাড়িতে আসেন। এময় যুগ্ন আহবায়ক রবিউল আলম তুহিন বলেন, আমরা এখানে কোন প্রকার অপৃতিকর ঘটনা ঘটাতে আসিনি। 

আমরা শুধু আহ্বায়কের কাছে জানতে চাই,  আপত্তিকর ইউনিয়ন কমিটিটি বিলুপ্ত করে নতুন যে কমিটিটি করা হয়েছে তা সাংবাদিকদের কাছে প্রেসবিফিং করে প্রকাশ করার কথা ছিলো তা তিনি করবেন কিনা সেটা আমরা শুনেই এখান থেকে চলে যাবো। 

একপর্যায়ে সাংবাদিকরা আমিনুল হক চৌধুরীর বাড়িতে গিয়ে তার সাথে এবিষয়ে আলোচনা করলে  তিনি জানান, যে কমিটি পূর্বে করা হয়েছিলো সেটিই বহাল থাকবে, পরবর্তীতে নতুন কোন কমিটি ঘোষনা দেওয়ার সুযোগ নেই। দরকার হলে আমি দল ত্যাগ করবো।

বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক রবিউল আলম তুহিন এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, পূর্বের আপত্তিকর ইউনিয়ন কমিটিকে বাতিল করে আমরা সর্বসম্মতিক্রমে নতুন কমিটি করেছি, আহবায়ক নতুন কমিটির অনুমোদন দেওয়ার লক্ষে দীর্ঘ দিন যাবৎ প্রেসব্রিফিং করবো করছি বলে সময় পার করছেন তাই খানসামা উপজেলা বিএনপির উপজেলা কমিটি, ইউনিয়ন কমিটি ও ওয়ার্ড কমিটির নেতাকর্মীরা চরম উত্তেজনায় তার দোকান থেকে বাড়ী পর্যন্ত উপস্থিত হয়েছিলো।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য