মধ্যবিত্ত

               
 
মোঃ কামরুল ইসলামের 
অক্টোপাশের মত জড়ান সুবিস্তৃত দড়ি
চেপে রাখে সারাক্ষনই সুসময় হয়ে রাশভারি।
এক আসে এক যায় সময়ের ঘড়ি
মনুষত্বের যাতাকলে পৃষ্ট দেখে ঠক-চাতুরি।

অক্টোপাশের মত জড়ান সুবিস্তৃত দড়ি
জীবন যাপনে নিত্য চলে দরাদরি।
কিনতে হয় চাল হতে পাট-খড়ি
দিন চলে যায় শুণ্য পকেট-নেই কানাকড়ি।

অক্টোপাশের মত জড়ান সুবিস্তৃত দড়ি
পথ চেয়ে বসে থাকে প্রিয়জন সারিসারি।
কখনও হয় না পূর্ণ সুদিনের ফুটো হাড়ি
তবুও স্মিতহাস্যে ফিরে পাই বাড়ি।

অক্টোপাশের মত জড়ান সুবিস্তৃত দড়ি
এলোমেলো আশাগুলো হয়ে যায় সুতাকাটা ঘুড়ি।
ছয় টাকা ছিষট্টি পয়সাতে জোটে না এক ঠুঙ্গা মুড়ি
কুনজরে হয়ত বেড়ে যায় বেরসিক ভূড়ি!

অক্টোপাসের মত জড়ান সুবিস্তৃত দড়ি
চাপে পড়ের চ্যাপটা হয় কাঁচা-পাকা দাড়ি।
দূর হতে মুচকি হাসে শুভক্ষণের গাড়ি
মধ্যবিত্তরা সহ্য করে এসব চেপে রেখে মাড়ি!!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য