কালীগঞ্জে ভিক্ষুক পূর্নবাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থানের সহায়তা প্রদান

হাসানুজ্জামান হাসান,লালমনিরহাটঃ 
লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে  ভিক্ষুক পূর্নবাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থানের সহায়তা প্রদান করা হয়।

রবিবার ১৪ জুন,  দুপুরে উপজেলা অফিসার্স ক্লাব মাঠে  উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের ৩১ জন ভিক্ষুককে ২য় পর্যায়ে  পূর্নবাসনের লক্ষে ১টি  করে গাভী,১০০ কেজি করে  চাল ও নগদ ৪হাজার পাঁচশত টাকা প্রদান করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রবিউল হাসান, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার সুকান্ত সরকার,তুষভান্ডার ইউপি চেয়ারম্যান নুর ইসলাম আহমেদ।

উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, ভিক্ষাবৃত্তিকে নিরুৎসাহিত করতে পুনর্বাসনের কাজ শুরু করেছে সরকার।ভিক্ষাবৃত্তি একটি স্বাধীন জাতির জন্য মর্যাদাহানিকর।

ভিক্ষুকদের স্বাবলম্বি করে গড়ে তুলতে সরকার বিশেষ কর্মসূচি গ্রহন করেছে। কালীগঞ্জ  উপজেলার তুষভান্ডার  ইউনিয়নে ইতোমধ্যে ৬৬ জন নারী ও পুরুষ ভিক্ষুকের তালিকা তৈরী করা হয়েছিল।পর্যায়ক্রমে বাকি ৭টি ইউনিয়নে এ কার্যক্রম শুরু হবে। গত ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০ তারিখে ৩৫ জনের মাঝে অনুদান বিতরন করা হয়েছিল। আজ বাকী ৩১ জনকে  পূর্ণবাসন করা হলো।

তিনি আরো  বলেন, এই উপজেলায় যারা ভিক্ষাবৃত্তির সাথে জড়িত। তাদের তালিকা তৈরী করা হয়েছে। এদের ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ করতে বিকল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরী করা হবে।  অর্থপ্রাপ্তির স্বাপেক্ষে এই উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন হতে ভিক্ষুক নির্মূলে কাজ শুরু করা হবে। এই প্রকল্পে লালমনিরহাট জেলার সরকারি কর্মচারীগণ একদিনের বেতন অনুদান হিসেবে জমা দিয়েছেন । 



এছাড়াও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তহবিল হতে ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সহায়তা পাওয়া গেছে।  পর্যাক্রমে এই জেলা ভিক্ষুক মুক্ত করা হবে। এজন্য সবাইকে সহযোগীতা করার আহবান জানান।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য